২৪ জুলাই, ২০২৪, বুধবার

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কলা

Advertisement

কলা সারাবছরই পাওয়া যায়। কলা একটি পুষ্টিকর ফল। ডিম ও দুধের মতো এটিও আমাদের অতি পরিচিত খাবার। কলায় বিদ্যমান ভিটামিন এ, বি, সি এবং ই সহ পটাশিয়াম, জিংক, আয়রন ইত্যাদির মতো খনিজ পদার্থ সমৃদ্ধ কলা। শক্তিরও বেশ ভালো উৎস।

আসুন তাহলে জেনে নিই কলার উপকারিতা-

কলা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে

গবেষণা অনুযায়ী, কলার পটাশিয়াম রক্তচাপের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং রক্তচাপের মাত্রা কমাতেও সাহায্য করতে পারে। যারা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছেন তারা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী খাবারের তালিকায় কলা রাখতে পারেন। তবে নিয়মিত কলা খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা যাবে সহজেই।

মস্তিষ্কের শক্তি উন্নত করে
কলা ভিটামিন বি এর একটি ভালো উৎস। কলা স্নায়ুর কার্যক্ষমতা এবং শেখার ক্ষমতা বাড়ায়। বড়দের পাশাপাশি শিশুকেও প্রতিদিন কলা খেতে দেওয়া উচিত। এতে স্মৃতি শক্তি বৃদ্ধি পাবে। ফলে তারা যেকোনো বিষয় খুব সহজেই মনে রাখতে পারবে।

স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়

স্ট্রোকের কারণে প্রতি বছর বিশ্বে বহু মানুষ মৃত্যুবরণ করছেন। তবে একটু সচেতন হলেই এই দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব। স্ট্রোক থেকে রক্ষা পেতে খাবার এবং জীবনযাপনে পরিবর্তন আনা জরুরি। সেক্ষেত্রে খাবারের তালিকায় যোগ করুন কলা।

হাড় ভালো রাখে কলা

বয়স কিছুটা বাড়লেই অনেককে হাড়ের নানা সমস্যায় ভুগতে দেখা যায়। কলা এই সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। শরীরে ক্যালসিয়াম শোষণ করে কলায় উপস্থিত প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া। যার ফলে এটি উন্নত হাড় গঠনে সাহায্য করে।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে কলায় থাকা পেকটিন যা অন্ত্রের কার্যকারিতা উন্নত করে। এই সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের প্রতিদিন পাকা কলা খাওয়া জরুরি। কলায় থাকা ফাইবার পেট পরিষ্কার রাখবে।

বেশি উপকার পেতে কলা কখন খাবেন-
সকালে নাস্তায় কলা রাখার বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেন। শরীরচর্চার পর সকালে একটি কলা খেলে নিলে দ্রুত শক্তি ফিরে আসে। সকাল বেলা টোস্ট কিংবা ডিমের সঙ্গে কলা খেলে তা পুষ্টি যোগানোর পাশাপাশি দীর্ঘ সময় পেট ভরিয়ে রাখে। তবে কলা সব সময় হেলদি ফ্যাটের সঙ্গে খাওয়া ভালো।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement