২০ জুলাই, ২০২৪, শনিবার

তালেবানের দখলে আফগান প্রেসিডেন্ট প্যালেস

Advertisement

বেশির ভাগ প্রদেশ দখল করার পর রাজধানী কাবুল ঘিরে রেখে প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির কার্যালয় প্রেসিডেন্ট প্যালেসে প্রবেশ করেছে দেশটিতে বিগত বিশ বছর ধরে সরকারি ও বিদেশি বাহিনীর সঙ্গে লড়াইরত সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী তালেবানের প্রতিনিধিরা।

দোহায় (কাতারের রাজধানী) কিছুদিন ধরে আফগান সরকারের সঙ্গে কথিত শান্তি আলোচনায় তালেবানের যেসব প্রতিনিধিরা অংশ গ্রহণ করেছিলেন তাদের মধ্যে ৮ থেকে ৯ জন এখন প্রেসিডেন্ট প্যালেসে রয়েছেন বলে জানাচ্ছে সিএনএন।

তবে বৈঠকে রয়েছেন এমন সূত্রের বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট প্যালেসে তালেবানের সেসব প্রতিনিধিদের মধ্যে তালেবানের উপপ্রধান নেতা সিরাজুদ্দিন হাক্কানির ভাই আনাস হাক্কানিও রয়েছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

কাতারের রাজধানী দোহায় গত সপ্তাহে কথিত আফগান শান্তি আলোচনায় তালেবান প্রতিনিধি এবং আফগান সরকারের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ওই আলোচনার আয়োজন করা হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র, পাকিস্তান, চীন, জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রতিনিধিদের নিয়ে।

তারপর তালেবান কাবুলের চারপাশ ঘিরে ফেলার ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে এ আলোচনার মধ্যে জার্মানিতে নিযুক্ত সাবেক রাষ্ট্রদূত আলী আহমদ জালালিকে অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রধান হিসেবে নিয়োগের খবর দিচ্ছে আফগান গণমাধ্যমগুলো।

এখন কাবুলের পরিস্থিতি থমথমে। সরকার বলছে, প্রক্রিয়া চলছে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের। অন্যদিকে তালেবানও জানিয়েছে, তারা জোর করে রাজধানী কাবুল দখল করবে না। কিন্তু কাবুলের সব প্রবেশদ্বারে তালেবান যোদ্ধাদের অবস্থান নিতে বলা হয়েছে।

আবার রয়টার্স জানাচ্ছে, স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও আন্তর্জাতিক অংশীদারদের সাথে পরামর্শ করছেন বলে গতকাল জানিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি। এমনকি পদত্যাগ করে তিনি তালেবান কমান্ডারের রাষ্ট্রক্ষমতা দখলের পথ তৈরি করে দিচ্ছেন বলেও শোনা যাচ্ছে।

আবার তালেবান যোদ্ধারা কাবুলের চারপাশ থেকে শহরটিতে প্রবেশ শুরু করেছে এমন খবর আসার মধ্যে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম টোলো টিভিতে সম্প্রচারিত এক ভিডিওতে কথা বলতে দেখা গেছে আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল সাত্তারকে।

আফগান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সেই ভিডিও বার্তায় জানিয়েছেন, অন্তর্বতীকালীন সরকারের কাছে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে। এ নিয়ে কথা জানিয়ে তিনি বলেন, রাজধানী শহর কাবুলে কোনো ধরনের হামলা হবে না।

পদত্যাগ করছেন গনি, অন্তর্বর্তী সরকারের প্রধান নিয়োগ

পুণরায় দুই দশকের যুদ্ধের পর আফগানিস্তানের ক্ষমতায় ফিরছে দেশটির সশস্ত্র বিদ্রোহীগোষ্ঠী তালেবান। আজ রোববার সকালের দিকে রাজধানী কাবুলে তালেবানের যোদ্ধারা প্রবেশ করার পর ইতোমধ্যে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করেছে আফগান সরকার। এমনকি তালেবানের শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের আহ্বানের পর জার্মানিতে নিযুক্ত দেশটির সাবেক রাষ্ট্রদূত আলী আহমদ জালালিকে অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের নতুন প্রধান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে আফগান গণমাধ্যমের খবরে জানানো হচ্ছে।

তবে শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরে সহায়তা করতে দেশটির সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তালেবানের একজন কমান্ডার বলেছেন, তাদের যোদ্ধারা কাবুলের প্রবেশপথগুলোতে অবস্থান নিলেও এখন পর্যন্ত শহরে প্রবেশ করতে পারেনি।

তালেবান এখনো কাবুলে প্রবেশ করতে পারেনি। তবে পরবর্তী পরিস্থিতি ‘শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর’ সরকারের সহযোগিতার ওপর নির্ভর করছে।

আবার জোরপূর্বক ক্ষমতা দখলের ইচ্ছে তালেবানের নেই বলে জানিয়েছেন তিনি। আফগান গণমাধ্যম বলছে, কাবুলের এআরজি প্রেসিডেন্ট প্যালেসে তালেবান এবং আফগান সরকারের মধ্যে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তাছাড়া কাবুল গেটের কাছে পরবর্তী নির্দেশের অপেক্ষায় আছেন তালেবান যোদ্ধারা।

তালেবানের সঙ্গে আফগান সরকারের ক্ষমতা হস্তান্তরের আলোচনায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশটির জাতীয় সংহতি পরিষদের প্রধান আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহ। অনদিকে আবার আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বলেছে, তালেবানের সহ-প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল গনি বারাদার দোহা থেকে ইতোমধ্যে আফগানিস্তানে পৌঁছেছেন। দোহায় বিভিন্ন পক্ষের সরকারের সঙ্গে আলোচনায় তালেবানের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বারাদার।

আবার রয়টার্স জানাচ্ছে, স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও আন্তর্জাতিক অংশীদারদের সাথে পরামর্শ করছেন বলে গতকাল জানিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি। পদত্যাগ করে তিনি তালেবান কমান্ডারের দায়িত্ব নেওয়ার পথ তৈরি করে দিচ্ছেন বলে শোনা যাচ্ছে।

তালেবান যোদ্ধারা কাবুলের চারপাশ থেকে শহরটিতে ঢুকতে শুরু করেছে এমন খবর আসার মধ্যে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম টোলো টিভিতে সম্প্রচারিত এক ভিডিওতে কথা বলতে দেখা গেছে আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল সাত্তারকে।

আফগানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সেই ভিডিও বার্তায় জানিয়েছেন, অন্তর্বতীকালীন সরকারের কাছে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে। এমন কথা জানিয়ে তিনি বলেন, রাজধানী শহর কাবুলে কোনো ধরনের হামলা হবে না।

আফগান সরকারি কর্মকর্তাদের বরাতে মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, তালেবানের আলোচকরা ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রস্তুতি নিতে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে যাচ্ছেন। এতে করে চাপের মুখে গনি সরকারের ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রক্রিয়া যে শুরু হয়েছে তা স্পষ্ট।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা জানাচ্ছে, তালেবানের দাপটে কাবুলের বাসিন্দাদের মধ্যে যে আতঙ্ক তৈরি হয়েছিল তা অনেকাংশে কেটে গেছে। সবাই যার যার বাড়িতে অবস্থান করছেন। রাস্তায় এখন তেমন কোনো যানবাহন দেখা যাচ্ছে না।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement