২৪ জুলাই, ২০২৪, বুধবার

সাবলেট থাকা দুই তরুণীকে নেশা দ্রব্য খাইয়ে ধর্ষণ

Advertisement

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি সাবলেট ভাড়া বাসায় থাকা দুই তরুণীকে খিচুড়ির সঙ্গে নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে খাইয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। ২৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার রাতে গার্মেন্টস কর্মী দুই তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে দেলোয়ার হোসেন নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় আজ রোববার দুপুরে এক তরুণী বাদী হয়ে ফতুল্লা থানায় মামলা করেছে। মামলায় উল্লেখ করা হয়, দেলোয়ার হোসেন রংপুর জেলার কাউনিয়া থানার বলব বিশু গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে। ফতুল্লা থানার হাজীগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সড়কের একটি ফ্ল্যাটে দেলোয়ার তার স্ত্রীকে নিয়ে এক রুমে ও দুই তরুণী আরেক রুমে সাবলেট থাকতেন। তাদের ফ্ল্যাটে রান্না ঘর একটি। সাত দিন আগে দেলোয়ার হোসেনের সঙ্গে ঝগড়া করে তার স্ত্রী বাবার বাড়ি চলে যায়। এরপর থেকে সে বাসায় একা থাকতো। গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে তারা দুই তরুণী গার্মেন্টস থেকে কাজ শেষে বাসায় এসে ঘরে থাকা রান্না করা খিচুড়ি খেয়ে ঘুমিয়ে পরে। আর ওই খিচুরিতে আগে থেকেই দেলোয়ার নেশা দ্রব্য মিশিয়ে রাখে। এতে তরুণীরা গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন হয়ে পরে। এরপর দেলোয়ার তাদের দুজনকে পর্যায় ক্রমে ধর্ষণ করে।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, ধর্ষক দেলোয়ারকে গ্রেফতার করে দুই তরুণীকে শহরের ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement