২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, সোমবার

ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে গলায় ফাঁস নিলো রিকশাচালক

Advertisement

রাজধানীর সবুজবাগে ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে রাহেল ইসলাম (২৫) নামে এক রিকশাচালক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে সবুজবাগের ভাড়া বাসায় ঘটনাটি ঘটে। রাহেল সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার রোকনতাজ গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে। 

সবুজবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আব্দুল আওয়াল এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, রাহেল পেশায় রিকশা চালক ছিলেন। স্ত্রী ও এক সন্তান নিয়ে সবুজবাগ দাসপাড়া কৃষ্ণ মন্ডলের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন তিনি। ঋণের কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারায় রাতে টিনশেড ঘরের আড়ার সাথে রশি পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেন তিনি। দেখতে পেয়ে তার স্ত্রীসহ স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে মুগদা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো জানান, পরে খবর পেয়ে সেখান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। মৃত চালকের বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার রোকনতাজ গ্রামে। বাবার নাম নজরুল ইসলাম।

গ্রামের প্রতিবেশী ফায়জুল ইসলাম জানান, তারা সবুজবাগে পাশাপাশি এলাকাতে থাকেন। স্ত্রী নুরজাহান ও একমাত্র মেয়ে নুসরাতকে নিয়ে দাসপাড়ার ওই বাসায় ভাড়া থাকতেন রাহেল। তিনি ১৫-২০ হাজার টাকা ঋণগ্রস্ত ছিলেন। রাতে পরিবারের সবাই খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। 

তিনি আরো জানান, মাঝরাতে নুরজাহানের ঘুম ভাঙলে দেখেন, রুমের ভেতরেই আড়ার সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছেন। তখন তার চিৎকার শুনে বাড়িওয়ালসহ লোকজন জড়ো হয়ে তাকে মুগদা হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে সংবাদ পেয়ে সবুজবাগ থানার পুলিশ ঐ রাতে মুগদা হাসপাতাল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে আইনি প্রকৃয়া শেষে ময়নাতদন্তের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement