১৭ জুন, ২০২৪, সোমবার

করোনায় ৭৬ দিন পর সর্বনিম্ন মৃত্যু দেখলো দেশ

Advertisement

করোনায় ৭৬ দিন পর সর্বনিম্ন মৃত্যু দেখলো দেশ। গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে সরকারি হিসেবে মৃত্যুবরণ করেছেন আরও ৭০ জন। এর আগে চলতি বছরের ১৯ জুন আজকের চেয়ে কম ৬৭ জনের মৃত্যুর খবর দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর। এ ছাড়া একই সময়ে করোনায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন তিন হাজার ১৬৭ জন। 

আজ শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

একদিনে মারা যাওয়া ৭০ জনকে নিয়ে দেশে করোনায় সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত মোট প্রাণ হারালেন ২৬ হাজার ৪৩২ জন। একই সময়ে শনাক্ত হওয়া তিন হাজার ১৬৭ জনকে নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগী মোট শনাক্ত হলেন ১৫ লাখ ১০ হাজার ২৮৩ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন চার হাজার ৬৯৭ জন। তাদের নিয়ে দেশে করোনাতে আক্রান্ত হলেন ১৪ লাখ ৪২ হাজার ৫৮২ জন।

একদিনে করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ২৯ হাজার ৪৭৯টি আর নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৯ হাজার ৪৩৮টি। দেশে এখন পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯০ লাখ ২১ হাজার ১০২টি জানিয়ে অধিদফতর জানাচ্ছে, এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৬৬ লাখ ৮২ হাজার ৫৯৮টি আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ২৩ লাখ ৩৮ হাজার ৫০৪টি। 

একই সময়ে করোনাতে রোগী শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৭৬ শতাংশ আর এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৭৪ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৫ দশমিক ৫২ শতাংশ আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৫ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৭০ জনের মধ্যে পুরুষ ৩৪ জন আর নারী ৩৬ জন। তাদের নিয়ে দেশে করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মোট পুরুষ মারা গেলেন ১৭ হাজার ১১৮ জন আর নারী মারা গেলেন নয় হাজার ৩২৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে বয়স বিবেচনায় ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে রয়েছেন চারজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ১৪ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ২১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে তিনজন আর ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে রয়েছেন একজন।

মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের রয়েছেন ২৪ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ১৫ জন, রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগের চারজন করে খুলনা বিভাগের ১২ জন, সিলেট বিভাগের আটজন আর রংপুর বিভাগের রয়েছেন তিনজন। মারা যাওয়া ৭০ জনের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ৫৭ জন, বেসরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ১০ জন আর বাড়িতে মারা গেছেন তিনজন।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement