১৬ এপ্রিল, ২০২৪, মঙ্গলবার

ক্ষতির কথা বললেও সরকারি সিদ্ধান্ত মানছেন গার্মেন্টস মালিকরা

Advertisement

প্রাণঘাতী করোনা মহামারির সংক্রমণ রোধে আগের বিধিনিষেধগুলোতে তৈরি পোশাক কারখানা খোলা থাকলেও এবার তা বন্ধ রয়েছে। গার্মেন্টস মালিকরা বলছেন, নিজেদের ক্ষতি ও রপ্তানি আদেশ বাতিলের ঝুঁকি থাকলেও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে সরকারের এই সিদ্ধান্ত তারা মেনে নিয়েছেন।

করোনা মহামারি দেশে ভয়াবহ আকারে ছড়িয়ে পড়তে থাকায় সারাদেশে কঠোরতম বিধিনিষেধ চলছে। শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে শুরু হওয়া বিধিনিষেধ চলবে আগামী ৫ আগস্ট দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত। এ সময় তৈরি পোশাক কারখানা বা গার্মেন্টসও অন্যান্য শিল্প কারখানার মত বন্ধ রয়েছে। বিধিনিষেধ চলাকালে গার্মেন্টস আর খুলবে না।

গত ১৩ জুলাই দুপুরে বিধিনিষেধ সংক্রান্ত জারি করা প্রজ্ঞাপনে এ কথা জানায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সব ধরনের শিল্প-কলকারখানা বন্ধ থাকবে।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, সব সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিসও বিধিনিষেধকালে বন্ধ থাকবে। সরকারি কর্মচারীরা নিজ নিজ কর্মস্থলে অবস্থান করবেন এবং দাফতরিক কাজ ভার্চুয়ালি (ই-নথি, ই-মেইল, এসএমএস, হোয়াটসঅ্যাপসহ অন্যান্য মাধ্যম) সম্পন্ন করবেন।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন গণমাধ্যমকে বলেছেন, গতবারের চেয়ে কঠিন হবে এই বিধিনিষেধ। এটি বাস্তবায়ন করতে পুলিশ, বিজিবি ও সেনাবাহিনী মাঠে থাকবে। এ সময় অফিস-আদালত, গার্মেন্টস-কলকারখানা ও রফতানিমুখী সবকিছুই বন্ধ থাকবে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement