২২ জুন, ২০২৪, শনিবার

জাবি ছাত্রকে রুমে আটকে বেদম পেটাল আনসার সদস্যরা

Advertisement

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে স্মৃতিসৌধে দায়িত্বরত আনসার সদস্যরা মারধর করেছেন। এতে গুরুতর আহত হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ৪৬তম ব্যাচের শিক্ষার্থী নূর হোসেন। সোমবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

নূর হোসেন বর্তমানে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। মারধরের ঘটনাটি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন জাতীয় স্মৃতিসৌধে কর্তব্যরত গণপূর্ত বিভাগের ইনচার্জ উপ-সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, ঘটনাটি অনাকাঙ্ক্ষিত। আনসার সদস্যের সাথে ওই শিক্ষার্থীর বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে চারজন আনসার সদস্য তাকে মারধর করে। পরে আমি সেখানে উপস্থিত হই। কিছুক্ষণ পরে পুলিশ আসে। তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

এ বিষয়ে নূর হোসেন বলেন, ‘আমি বিকেলে আমার দুজন ভাগনেসহ স্মৃতিসৌধ ঘুরতে যাই। সেখানে অনেককে অর্থের বিনিময়ে প্রবেশ করতে দিচ্ছিল ডিউটিরত আনসার সদস্যগণ। আমি এটার প্রতিবাদ করলে তারা আমাকে রুমে নিয়ে আবদ্ধ করেন।’

তিনি বলেন, ‘পরে অত্যন্ত নারকীয় কায়দায় সাত-আট জন আনসার সদস্য ঠোঁট, গলা, তলপেটে মারাত্মকভাবে আঘাত করে। এমনকি মাথাতেও আঘাত করে। এছাড়া তাদের ব্যবহৃত লাঠি দিয়ে আমার পা থেঁতলিয়ে দিয়েছে।’

বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী জহির ফয়সাল বলেন, আমি নূরকে নিয়ে হাসপাতালে আছি। তাকে অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে। সে শারীরিকভাবে প্রচণ্ড আঘাত পেয়েছে। সে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলে পরিচয় দেওয়ার পরেও অমানুষিক নির্যাতন করে তারা।’

তিনি বলেন, ‘নূরের চিকিৎসাব্যয় স্মৃতিসৌধ প্রশাসনকে বহন করতে হবে। এ ঘটনায় আমরা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি। এছাড়া এ ঘটনার প্রতিবাদে আগামীকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন করব।’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement