১৭ জুলাই, ২০২৪, বুধবার

জিডি’র যাবতীয় (পর্ব ২)

Advertisement

জেনারেল ডায়েরি বা জিডি হল অপরাধ ও অন্যান্য সংবাদবিষয়ক রেজিস্টার। ফৌজদারি কার্যবিধির দৃষ্টিতে, থানা হল ফৌজদারি জুরিসডিকশনের সর্বনিম্ন ইউনিট। যেখানে সংশ্লিষ্ট এলাকার জনগণ তাদের জীবনে ঘটে যাওয়া বা ঘটতে যাচ্ছে এমন সব ঘটনা সম্পর্কে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেন।

জিডি ‘কী, কেন,কীভাবে ,সে বিষয়ে বিস্তারিত আলাপ করেছি প্রথম পর্বে । তবে এবারের দ্বিতীয় কিস্তিতে থাকবে সহজ উপায়ে ঘরে বসে সাধারণ ডায়েরি সম্পন্নের প্রক্রিয়া ।

দুর্বার গতিতে ডিজিটাল পদ্ধতিতে অনলাইনের মাধ্যমে ঘরে বসেই জিডি করা সম্ভব। তবে প্রথমেই আপনাকে যেতে হবে http://gd.police.gov.bd এই সাইটে । এখানে গিয়ে মাত্র তিন ধাপেই সম্পন্ন করে ফেলতে পারবেন কাঙ্খিত জিডিটি ।

তবে,পুলিশের তাৎক্ষণিক সাড়া দেবার প্রয়োজন নেই এসব ক্ষেত্রে যেমন- জরুরী কাগজপত্র, মোবাইল, পাসপোর্ট হারানো বিষয়গুলোতে। এসব ক্ষেত্রে অনলাইনে জিডি করতে পারেন। এ পদ্ধতিতে দেশের বাইরে থেকেও জিডি করা সম্ভব। অনলাইনে জিডি করার পর ই-মেইল বা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জিডি নম্বরটি জিডিকারীকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

অনলাইনে জিডি করার ক্ষেত্রে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো হলো-

  • জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার ।
  • আপনার সচল মোবাইল নাম্বার ।
  • আপনার জন্ম তারিখ ।

উপরোক্ত জিডি করার সাইটে টিউটোরিয়াল ভিডিও যুক্ত করা আছে । কেউ চাইলে সেটা দেখেও জিডি করতে পারবেন ।

পরবর্তীতে লগ-ইন করে জিডির সর্বশেষ অবস্থাও জেনে নিতে পারবেন । পাশাপাশি জিডি করার পর সেটার অনলাইন কপি ডাউনলোড করে রাখতে হবে ।  

অনলাইনে জিডি করার প্রক্রিয়াটি যেহেতু অল্পদিন আগে থেকে শুরু হয়েছে,তাই সমগ্র বাংলাদেশকে এর আওতাধীনে এখনও আনা হয়নি । বর্তমানে অনলাইন জিডি সার্ভিসটি পরীক্ষামূলকভাবে শুধু ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সূত্রাপুর, কলাবাগান ও ক্যান্টনমেন্ট এবং ময়মনসিংহ জেলার সদর ও ভালুকা থানা এলাকায় চালু আছে। এর বাইরে অন্য যেকোন থানায় হারানো অথবা প্রাপ্তি সংক্রান্ত জিডি সশরীরে থানায় গিয়ে করতে হবে।

সময়ের সাথে সাথে অনলাইন জিডি বাংলাদেশের সব থানায় যুক্ত হবে বলে আশা করা যায় । 

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement