১৭ জুন, ২০২৪, সোমবার

মিসরের প্রকৌশলী মাহমুদ আল কেমি পানি তৈরির রোবট বানিয়ে তাক লাগালেন!

Advertisement

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে মিসরের এক তরুণ প্রকৌশলী সম্প্রতি এমনই এক রোবট তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন।

পানিতেই প্রাণ, পানিই জীবন। এই একটাই শর্ত পৃথিবীর বাইরে বাসযোগ্য গ্রহ খুঁজে বের করার পক্ষে। আমাদের তখন  আনন্দের সীমা থাকে না যখন সৌরজগতের এত গ্রহের মধ্যে তার বিন্দুমাত্র ইঙ্গিতও যদি কোথাও পাওয়া যায়।

রোবট ‘ঊখট’ সেক্ষেত্রে সুখবর নিয়ে এলো। যে কোনো গ্রহে বাতাসের আর্দ্রতাকে কাজে লাগিয়ে হাজার হাজার লিটার পানি জমা করতে সক্ষম রোবটটি তৈরি করেছেন মিসরের তরুণ প্রকৌশলী মাহমুদ আল কেমি।

এখন লালগ্রহে অনেক বেশি আর্দ্র আবহাওয়া বিরাজ করলেও অতিরিক্ত বায়ুমণ্ডলীয় চাপের কারণে সেখানে তরল পানি থাকা সম্ভব নয়। কিন্তু সেখানে রয়েছে বরফ। বিজ্ঞানীরা দীর্ঘদিন পৃথিবীর কাছাকাছি বসবাসের বিকল্প গ্রহের সন্ধানে ধরেই মঙ্গলে প্রাণ ও পানির অস্তিত্ব নিয়ে গবেষণা করে আসছিলেন। বিজ্ঞানীদের মঙ্গলগ্রহের অভিযানে অনুপ্রাণিত হয়েই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে ব্যবহার করে ঊখট রোবট তৈরি করেন মাহমুদ।

প্রকৌশলী মাহমুদ আল কেমি বলেন, ঊখট-তে এমন এক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে যা বাতাসের আর্দ্রতা থেকে পানিকে আলাদা করতে পারে। যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে মঙ্গলের উচ্চ আর্দ্রতার অঞ্চলে গিয়ে বিশুদ্ধ পানি উৎপাদনে সক্ষম।

তাছাড়াও লাল গ্রহে প্রাণের অস্তিত্বের জন্য এটি বেশ কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলে আমি মনে করি।

প্রকৌশলী মাহমুদ আল কেমি দাবি করেছেন, এভাবে ঊখট কম খরচে দৈনিক ৫ হাজার লিটারের বেশি পানি জমা করতে পারে। ফলে একদিকে যেমন প্রযুক্তি ব্যবহারে খরচ কমানো সম্ভব, অন্যদিকে শক্তির অপচয়ও কমবে। রোবটটি ব্যবহারে এক লিটার পানি উৎপাদনের খরচ মাত্র দেড় থেকে ২ সেন্ট, অন্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে যেখানে একই কাজ করতে প্রায় ২০ গুণ বেশি অর্থ খরচ হয়।

এই রোবটটি  তৈরি করতে ৯ মাসের বেশি সময় লেগেছে মাহমুদের।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement