৩ মার্চ, ২০২৪, রবিবার

রেকর্ডগড়া সেঞ্চুরি করেন বিরাট কোহলি

Advertisement

গোহাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে রেকর্ডগড়া সেঞ্চুরি করেন বিরাট কোহলি। সেই সেঞ্চুরিতে ভেঙেছেন জীবন্ত কিংবদন্তী শচীন টেন্ডুলকারে একাধিক রেকর্ডও। 

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডেতে এখন সবচেয়ে বেশি শতকের (৯) মালিক কোহলি। তার সেঞ্চুরির পর ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) একটি ভিডিও শেয়ার করে। যেখানে সূর্যকুমার যাদবের সঙ্গে কথা বলেন বিরাট। 

জানান, নিজের খারাপ সময় থেকে ফিরে আসার গল্প। কোহলি স্বীকার করেন, খারাপ সময়ে তার মধ্যে হতাশা তৈরি হয়েছিল, ক্রিকেট তাকে তার ইচ্ছামতো পারফর্ম করতে দেয়নি।

বর্তমান কালের এই ব্যাটিং জিনিয়াস বলেন, ‘আমার হতাশা বাড়তে থাকে। কারণ আমি একই ফ্যাশনে খেলতে চেয়েছিলাম। ভক্তদের প্রত্যাশাও ছিল তেমনই। তাই আমি চেয়েছি আমার খেলা উচিত, আমাকে খেলতে হবে। কিন্তু ক্রিকেট আমাকে সেই ধাঁচে খেলতে দেয়নি। এটা আমার জন্য অন্যরকম সময় ছিল। সময়টা আমার ইচ্ছা এবং একাগ্রতা যেন পুরোপুরি দখল করে নিয়েছিল।’

সময়ের অন্যতম সেরা এই ব্যাটার ফিরে আসার জন্য নিজের ওপর আস্থা হারাননি। ওই ভিডিওতে কোহলি আরও বলেন, ‘আমি বুঝতে পেরেছিলাম যে, আমি কে? তাই আমি দূরে থাকতে পারি না। আমাকে নিজের প্রতি সৎ হতে হবে। এমনকি যখন আমি দুর্বল থাকি এবং ভালো খেলতে পারি না, তখন আমি আশেপাশের সবচেয়ে খারাপ খেলোয়াড়, আমাকে এটা মেনে নিতে হবে।’

সেই দুঃসময়ের অনেক অজানা কথাই যেন অকপটে বলে দিলেন বিরাট, ‘অস্বীকার করার সুযোগ নেই, আমার মধ্যে অনেক হতাশা ঢুকে পড়েছিল। আমি খুব খামখেয়ালি হয়ে উঠছিলাম। যা মোটেও ভালো ছিল না। এমনকি আমার আশেপাশের কারও জন্যও না। আমার অতি ঘনিষ্টজন আনুশকার জন্যও না।’

কোহলি বলেন, ‘আমাকে যারা ভালবাসেন, ভক্ত-সমর্থক তাদের জন্যও না। তাই আমাকে দায়িত্ব নিতে হয়েছিল। এরপর আমি এশিয়া কাপের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করি। আমি তখন অনুশীলন উপভোগ করতে শুরু করি। যেভাবে আমি সবসময় আমার ক্রিকেট খেলেছি, সবকিছু আবার সেভাবে হচ্ছিল।’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement