২৩ এপ্রিল, ২০২৪, মঙ্গলবার

শোভাযাত্রার শাড়ি নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের হাতাহাতি, আহত ৪

Advertisement

ছাত্রলীগের শোভাযাত্রার শাড়ি নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের হাতাহাতি হয়েছে। হাতাহাতিতে চার জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এতে দীর্ঘ সময় হলের মেইন গেট অবরুদ্ধ অবস্থায় থাকে। 

৬ জানুয়ারি (শুক্রবার) রাতে ছাত্রলীগের শোভাযাত্রা শেষে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক মুক্তিযুদ্ধ ও গবেষণা বিষয়ক উপসম্পাদক ও হলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রনক জাহান রাইন, প্রশিক্ষণ উপ সম্পাদক তানিয়া আক্তার তাপসী, ছাত্রলীগ কর্মী সোলতানা ও সাধারণ শিক্ষার্থী শাহিদা আক্তার। আহতরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ বুদ্ধিজীবী ডা. মোহাম্মদ মোর্তজা মেডিকেল সেন্টার থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী, হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নিলুফার পারভীন, ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন ও সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত উভয়পক্ষের সঙ্গে আলাপ করে সমাধানের করার চেষ্টা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা বলেন, শাহিদা তার রুম থেকে খাবারের জন্য নিচে নামেন, কিন্তু সেখানে হাতাহাতির মাঝখানে পড়ে যাওয়ায় তাকে তাপসীর গ্রুপের কর্মী মনে করে মারধর করা হয়। সে আহত হওয়ার পর, তাকে হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

হল ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী বলেন, শোভাযাত্রা উপলক্ষে তাপসী আলাদাভাবে নতুন শাড়ির কথা জানালে দিতে অস্বীকার করে হল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। তাপসী বিষয়টি তানভীর হাসান সৈকতকে জানালে সৈকত শাড়ি পরিধান না করে সাধারণ ড্রেসে আসতে বলেন। হলের সঙ্গে একত্রে মিছিল নিয়ে শোভাযাত্রায় উপস্থিত না হওয়া তাপসীকে হল থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। পরে হলে গেলে কথা কাটাকাটি হয়। এর থেকেই সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে।

প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মাঝে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছিল। হল প্রশাসন বিষয়টি দেখছেন। আশা করি সুষ্ঠু একটা সমাধান হবে।

এদিকে ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন জানান, আমরা বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছি।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement