৩ মার্চ, ২০২৪, রবিবার

সুইডেনে ফুল-ফ্রি স্কলারশিপ, মাসে পাবেন লাখ টাকা

Advertisement

আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের ফুল-ফ্রি স্কলারশিপে স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে অধ্যায়নের সুযোগ দিচ্ছে সুইডেন সরকার। সুইডিশ ইনস্টিটিউট স্কলারশিপ ফর গ্লোবাল প্রফেশনালের আওতায় নির্বাচিত শিক্ষার্থীরা সুইডেনের উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে অধ্যায়নের সুযোগ পাবেন। বাংলাদেশসহ মোট ৪০টি দেশের শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। 

আবেদন করতে পারবেন যেসব দেশের শিক্ষার্থীরা: 

আর্মেনিয়া, আজারবাইজান, বাংলাদেশ, বলিভিয়া, বেলারুশ, ব্রাজিল, কম্বোডিয়া, ক্যামেরুন, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, মিশর, ইথিওপিয়া, গাম্বিয়া, জর্জিয়া, ঘানা, গুয়াতেমালা, হন্ডুরাস, ইন্দোনেশিয়া, জর্ডান, কেনিয়া, লাইবেরিয়া, মালাউই, মোল্দোভা, মরক্কো, মায়ানমার (বার্মা), নেপাল, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, পেরু; ফিলিপাইন, রুয়ান্ডা, দক্ষিন আফ্রিকা, শ্রীলংকা, সুদান, তানজানিয়া, তিউনিসিয়া, উগান্ডা, ইউক্রেন, ভিয়েতনাম, জাম্বিয়া, জিম্বাবুয়ে।

সুযোগ-সুবিধাসমূহ:

* সম্পূর্ণ টিউশন ফি মওকুফ।

* আবাসন ভাতা হিসেবে প্রতিমাসে মাসে ১০০০০ SEK (বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ১ লাখ হাজার টাকা) দিবে। 

* ভ্রমণ ভাতা হিসেবে এককালীন ১৫০০০ SEK (বাংলাদেশী টাকায় প্রায় দেড় লাখ হাজার টাকা) দেওয়া হবে।

* স্বাস্থ্যবীমা দেওয়া হবে।

যোগ্যতা:

* স্নাতক ডিগ্রিধারী হতে হবে।

* অ্যাকাডেমিক ফলাফল ভালো হতে হবে।

* নির্ধারিত ৪০টি দেশের শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।

* ইংরেজি ভাষায় দক্ষ হতে হবে।

* ন্যূনতম ৩ হাজার ঘণ্টা কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

* আবেদনকারী যে মাস্টার্স প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করবেন, সেটি অবশ্যই সুইডিশ ইনস্টিটিউট (SI) স্কলারশিপের জন্য যোগ্য হতে হবে।

* ২০২৩ সালের ৩০ মার্চের মধ্যে একটি যোগ্য মাস্টার্স প্রোগ্রামে ভর্তি হতে হবে।

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র: 

* পাসপোর্ট এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি/ছবি। 

* অ্যাকাডেমিক সব সার্টিফিকেট ও মার্কশিট। 

* সিভি (এসআই-টেমপ্লেট অনুযায়ী)। 

* ইংরেজী ভাষা দক্ষতা পরীক্ষার  সনদ। 

* মোটিভেশন লেটার।

* রেফারেন্স লেটার।

* কাজের অভিজ্ঞতার সনদ।

আবেদন প্রক্রিয়া: 

দুটি প্রাথমিক ধাপে আবেদন করতে হবে। প্রথমে ১৬ জানুয়ারি ২০২৩ এর মধ্যে https://www.universityadmissions.se/intl/start এই ওয়েবসাইটে একটি স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে হবে। আবেদন জমা দেওয়ার পরে আবেদনকারীকে আট সংখ্যা বিশিষ্ট একটি ব্যক্তিগত আবেদন নম্বর দেওয়া হবে। 

দ্বিতীয় ধাপে, আবেদনকারী স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে জন্য নির্বাচিত হলে, স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আবেদনকারীকে ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ পর্যন্ত অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন পোর্টালের মাধ্যমে ডিজিটালভাবে প্রয়োজনীয় নথি জমা দিতে হবে।

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন https://si.se/en/apply/scholarships/swedish-institute-scholarships-for-global-professionals/

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement