২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, সোমবার

৩১৭ রানের রেকর্ড জয় ভারতের

Advertisement

তিরুঅনন্তপুরমে বিশ্বরেকর্ড গড়ে সিরিজের শেষ ওয়ানডে জিতে শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করেছে ভারত। বিরাট কোহলি, শুভমান গিলের সেঞ্চুরিতে টসজয়ী ভারত ৫ উইকেটে ৩৯০ রান করে। জবাবে ২২ ওভারে মাত্র ৭৩ রানে অলআউট হয় লঙ্কা। অবশ্য ফিল্ডিংয়ের সময় আহত হওয়ায় বান্দ্রা মাঠে নামেননি। ফলে ৯ উইকেট হারানোর পরই ওয়ানডে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ৩১৭ রানে হারের শিকার হয় শ্রীলঙ্কা। ২০০৮ সালে আয়ারল্যান্ডকে ২৯০ রানে হারিয়ে আগের রেকর্ডটি গড়ে নিউজিল্যান্ড।

সিরিজের শেষ ওয়ানডে ম্যাচে ১১০ বলে ১৬৬ রান করে অপরাজিত ছিলেন বিরাট কোহলি। সেঞ্চুরি করেন শুভমান গিলও। জোড়া সেঞ্চুরিতে ৫ উইকেটে ৩৯০ রান করে স্বাগতিকরা। কোহলি ১৩ চারের পাশাপাশি ৮টি ছক্কা মেরেছেন। দারুণ এই সেঞ্চুরিতে কোহলি গড়েছেন অনেক কীর্তি। ঘরের মাঠে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এতদিন সর্বোচ্চ সেঞ্চুরি ছিল শচীনের। গতকাল কোহলি তাকে ছাড়িয়ে ২১তম সেঞ্চুরি করলেন। একটি নির্দিষ্ট প্রতিপক্ষের বিপক্ষে বেশি সেঞ্চুরির রেকর্ডেও শচীনের সঙ্গে এতদিন যৌথভাবে ছিলেন কোহলি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৯টি সেঞ্চুরি করেছিলেন লিটল মাস্টার।

লঙ্কার বিপক্ষে কোহলির সেঞ্চুরি এখন ১০টি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক রান করা ক্রিকেটারদের তালিকায় সেরা পাঁচে ঢুকে পড়েছেন কোহলি। ২৬৯ ম্যাচে তার রান ১২ হাজার ৭৫৪। এ তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন শচীন। তার রান ১৮ হাজার ৪২৬। ওয়ানডেতে শচীনের সেঞ্চুরি ৪৯টি, কোহলির হলো ৪৬টি। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে কোহলির সেঞ্চুরি সংখ্যা ৭৪তম। শচীনের ১০০। শচীনের এ রেকর্ড স্পর্শ করতে কোহলি পিছিয়ে আছেন ২৬ ধাপ।

টেস্টে কোহলির সেঞ্চুরি ২৭টি, ওয়ানডেতে ৪৬, টি-টোয়েন্টিতে আছে এক সেঞ্চুরি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভারতের হয়ে গতকাল ওয়ানডেতে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন শুভমান গিল। ৯৭ বলে ১১৬ রান করেন তিনি। ওয়ানডেতে ওয়েষ্ট ইন্ডিজ সফরে সেঞ্চুরির পর তিনি ঘরের মাঠে প্রথম সেঞ্চুরি করলেন।

সেঞ্চুরির পর শুভমান বলেন, ‘কোহলিকে নিয়ে আর নতুন করে কী বলব। রোহিত বা বিরাট ভাইয়ের মতো ক্রিকেটারের সঙ্গে ব্যাট করতে নামলে নিজের বেশি কিছু করার থাকে না। আমরা নিজেদের মধ্যে কথা বলে নিয়ে ঠিক করছিলাম কোন বোলারের বিরুদ্ধে কখন আক্রমণ করব। কোহলি ভাইয়ের কথা আলাদা করে বলতে চাই। অসাধারণ ক্রিকেটার। ছোটবেলার বহুবার তার খেলা দেখেছি। একই সঙ্গে ব্যাট করতে নামার যে অনুভূতি, সেটা কোনোদিন ভুলতে পারব না।’

শুভমান আরও বলেন, ‘সেঞ্চুরির পর দারুণ লাগছে। ভালো শুরু করার পর বড় রান পেলে একটা আলাদা তৃপ্তি হয়। কত রান তুলব সেটা আগে থেকে কেউই ঠিক করে রাখিনি। মাঝে মাঝে কিছু বল নিচু হয়ে যাচ্ছিল। তবে এই উইকেটে ব্যাট করে দারুণ লেগেছে।’ শ্রীলঙ্কার অবশ্য ব্যাটিং করতে মোটেই ভালো লাগেনি। তাই ১০০ রানও তুলতে পারেনি তারা। মোহাম্মদ সিরাজ ১০ ওভারে ৩২ রানের বিনিময়ে ৪ উইকেট নেন। কুলদীপ নেন ২ উইকেট।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisementspot_img
Advertisement

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

Advertisement